Category Archives: বিনোদন

ঐশ্বরিয়ার কাছে ক্ষমা চাইলেন ইমরান হাশমি

বছর দুয়েক আগে ঐশ্বরিয়া রাইয়ের সঙ্গে এমন এক ঝামেলায় জড়িয়ে পড়েন, তার জন্য এখন ক্ষমা প্রার্থনা করছেন বলিউড অভিনেতা ইমরান হাশমি। না, ‘কিস’ করতে ইচ্ছা প্রকাশ করে নয়, ঐশ্বরিয়াকে ‘প্লাস্টিক’ বলে মন্তব্য করে নায়িকার রোষানলে পড়েন তিনি। সম্প্রতি ভারতীয় একটি পত্রিকাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বলিউডের সিরিয়াল কিসার খ্যাত ইমরান হাশমি এ ক্ষমা প্রার্থনা করেন।

কী ঘটেছিল সেদিন? বলিউড প্রযোজক ও নির্মাতা করণ জোহরের জনপ্রিয় শো ‘কফি উইথ কর্ণ’-তে কুইজের র‌্যাপিড ফায়ার রাউন্ডে তিনি ঐশ্বরিয়াকে ‘প্লাস্টিক’-এর সঙ্গে তুলনা করে বসেন। ব্যাস, তারপর থেকেই ইমরানের নাম শুনলে তেলে-বেগুনে জ্বলে ওঠেন অভিষেক বচ্চনপত্নী। যার রেষ যে এখনও কাটেনি তার প্রমাণ পাওয়া যায়, ইমরান থাকছেন জেনে মিলন লুথরার একটি ছবিতে নায়িকার অফার দেওয়ায়।

তাই ক্ষমা চাওয়া ছাড়া উপায়ান্তর দেখতে পাচ্ছেন না ইমরান। এখন মনের কালিমা ঘুচিয়ে ক্ষমা সুন্দর হাসি কবে হাসবেন ঐশ্বর্যা, সেটাই দেখার বিষয়।

a-roy

প্রযোজকের সঙ্গে রাত কাটানোয় ঘর ভাঙছে অভিনেত্রীর! অবাক হবেন পড়লে

তিনি তামিল সুপারস্টার অভিনেত্রী। অল্প সময়েই দর্শকের মন কেড়েছেন। পেয়েছেন একাধিক অ্যাওয়ার্ড। বড় পর্দায় অভিষেক ২০০৯ সালে। মাত্র ১৮ বছর বয়সে মালায়লম সিনেমাতে অভিনয় করে আলোচনায় আসেন।

৭ বছরের ক্যারিয়ারে ইতোমধ্যেই ৩০টি ছবিতে অভিনয় করেছেন তিনি। সেই সুপারস্টার নায়িকা অমলা পালের সংসারে নাকি টালমাটাল অবস্থা! যে কোন সময় বালুর বাঁধের মতো ভেঙে যেতে পারে তার ঘর। তামিল, তেলেগু, মালায়লম, কন্নড় ভাষায় একের পর এক হিট ছবি উপহার দিয়েছেন তিনি। ২০১১ সালে জিতেছেন বেস্ট তামিল অভিনেত্রীর শিরোপা।

২০১২ সালে জিতেছেন দক্ষিণের ফিল্ম ফেয়ার অ্যাওয়ার্ড। ২০১৩ সালে জিতেছেন বেস্ট মালায়লম অভিনেত্রীর শিরোপা। রূপে-গুণে কমতি নেই কোনখানে। কিন্তু কেন তার সংসারে ভাঙনের সুর? শোবিজ তারকাদের কি একাধিক বিয়ে ও বিচ্ছেদ থাকতেই হয়!

জানা গেছে, অমলা নাকি এক প্রযোজকের সঙ্গে রাত কাটিয়েছেন। এ অভিযোগ তার স্বামী বিজয়ের। স্থানীয় কিছু পত্রিকা এই সংবাদ প্রকাশ করায় বিজয়ের বিশ্বাস আরও পোক্ত হয়েছে।

মাত্র বছর দু`য়েক আগেই তিনি বিয়ে করেছিলেন পরিচালক বিজয়কে। এরইমধ্যে নাকি তাদের ডিভোর্স ফাইল করাও শেষ। তবে সরাসরি মিডিয়ার সামনে দু`জনের কেউই কিছু বলেননি।

omla-pal-bg20160827162340

 

 

omla-pal-bg20160827162340

প্রেম করার জন্য সাংবাদিকরাই সেরা, জেনে নিন ১০ কারণ! পড়ে অবাক হবেন

media

সাংবাদিকদের সঙ্গে নাকি ডেট করা বেশ কঠিন। সাংবাদিকদের পকেট নাকি সব সময়ই খালি আর তারা নাকি সব সময় বড্ড বেশি কাজ নিয়েই মেতে থাকে। কথাটা নেহাত মিথ্যা নয়। কিন্তু তাই বলে তাদের সঙ্গে ডেট করা কঠিন, এ কথা নেহাতই আজগুবি। মিথ মাত্র। আসলে সাংবাদিকদের সঙ্গে প্রেম করা বেশ লাভজনক। জেনে নিন কেন সাংবাদিকরা প্রেমিক বা প্রেমিকা হিসেবে অন্য যেকোনো পেশার পার্টনারের থেকে কয়েকশো মাইল এগিয়ে।

১. পেশার খাতিরে সাংবাদিকরা এমনিতেই চড়কিপাক ঘোড়েন। তাই শহরের অলিগলিতে কোথায় কোন খাবারের ঠেক, কোনো হুল্লোড়ের আড়ত সব তাদের নখদর্পণে। তাই তাদের সঙ্গে প্রেম মানে জীবনে খানা খাজানা আর ফূর্তির মজলিসের সংখ্যার প্রাচুর্য্য।

২. সাংবাদিকরা সচরাচর এতটাই কম মাইনে পান যে টাকা বিষয়ে তাদের মোহ ব্যাপারটা তৈরি হয় না। ভেবে দেখুন, টাকার ওপর বিশেষ টান নেই এমন প্রেমিক বা প্রেমিকা কি সহজে মেলে?

৩. পেশার জন্য সাংবাদিকরা সর্বদাই ব্যস্ত। তাদের সঙ্গে প্রেম করলে আপনার ব্যক্তিগত স্পেসের বিশেষ অভাব হবে না। আপনার নিজস্ব সময়ে নাক গলানোর সময়টাই যে তাদের বিশেষ নেই।

৪. সাংবাদিকরা সর্বঘটে কাঁঠালি কলা সদৃশ। চাই বা না চাই গুচ্ছ কাজ তাদের শিখে রাখতেই হয়, যাকে বলে বাই ডি ফল্ট মাল্টিটাস্কিং।এক সঙ্গে অনেক কাজ তাদের অভ্যাস হয়ে যায়। বাড়িতেও এমন একজন মাল্টিটাস্কিং পার্টনার কে না চায় বলুন?

৫. সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলুন। দেখবেন, জানা থাকুক বা না থাকুক আলপিন থেকে আলাস্কা, সব কিছু নিয়েই তারা নাতি দীর্ঘ বক্তৃতা দিতে পারেন। ফলে যখন কোনো কাজ থাকবে না, বোর হবেন, তাদের সঙ্গে আরামসে বকবক করতে পারেন।

৬. খবর সন্ধানের তাগিদে এর ওর তার থেকে এত এটা ওটা সেটা শুনতে হয়, সাংবাদিকরা আপসেই ভালো শ্রোতা হয়ে ওঠেন। প্রেমিক বা প্রেমিকা যদি ভালো শ্রোতা হন, তার থেকে ভালো আর কী-ই বা হতে পারে?

৭. সাংবাদিকরা বিশ্বাসী আর হেল্ফফুল হয়।

৮. এমনিতেই তাদের এমন গাধার খাটুনি খাটতে হয়, যে, সাংবাদিকরা ইচ্ছা-অনিচ্ছার উর্ধ্বে গিয়ে বাই ডি ফল্ট কঠোর পরিশ্রমী হয়ে ওঠে। সঙ্গী বা সঙ্গিনী পরিশ্রমী হওয়া যে কারও পক্ষেই অত্যন্ত সুখকর।

৯. সাধারণত সাংবাদিকরা বেশ ক্রিয়েটিভ হন। নিজের পেশা ছাড়াও আরও অনেক কিছুতেই পারদর্শী হন।পার্টনার যদি সৃজনশীল হন, তা হলে গর্বে বুকের ছাতি ইঞ্চি খানেক বাড়ে বৈকি।

১০. সারাটা দিন এর ওর সঙ্গে খেজুরে ভদ্রতা করতে গিয়ে এমন দেঁতো হাসিটা দিতে হয়, সেই হাসিটাই সাংবাদিকদের কেমন অভ্যাস হয়ে যায়। হাসি খুশি বয়ফ্রেন্ড বা গার্লফ্রেন্ড কে না চান?- সংবাদমাধ্যম

media

সানি লিওনের জীবনী নিয়ে সিনেমা!

পর্নোগ্রাফির জগৎ থেকে বলিউডের নায়িকা হওয়া সানি লিয়ন। সত্যিই তার জীবনকাহিনী ইউনিক। তার জীবন নিয়ে তথ্যচিত্রের কথা তো হচ্ছিলই। এখন শোনা যাচ্ছে শুধু তথ্যচিত্রই নয়, পুরোদস্তুর একটি ফিচার ফিল্ম হবে সানির জীবন নিয়ে।

ছবিটি প্রযোজনা করবেন সানি লিয়ন ও তার স্বামী ড্যানিয়েল ওয়েবার। ছবিতে সানি নিজেও অভিনয় করবেন। ছবিটি পরিচালনা করবেনতেরে বিন লাদেন: ডেড অর অ্যালাইভের পরিচালক অভিষেক শর্মা।

সানি ও ড্যানিয়েলের কিছু বন্ধুকেও নাকি ছবিতে দেখা যাবে। অভিনয় করবেন ড্যানিয়েল ওয়েবারও।

সানির প্রেম, বিয়ে, পেশা সবকিছুই নাকি থাকবে ছবিতে। সানি যে সব বিতর্কে জড়িয়েছিলেন, সেগুলোও থাকবে। তবে ছবি সম্পর্কে এখন এর থেকে বেশি আর কিছু জানা যায়নি।

sunny-leone_bg20160706051800-550x366

রজনীকান্তকে শ্রেষ্ঠ তারকা মানতে নারাজ নানা পাটেকার

কাবালি মুক্তির বেশ কিছুদিন আগে থেকেই রজনীকান্ত জ্বরে ভুগছিল ভক্তমহল। ভক্তদের কাছে রজনীকান্ত শুধু জনপ্রিয়ই নন, বাড়াবাড়ি রকম জনপ্রিয়। অনেক অভিনেতাই তাঁকে একবাক্যে ভারতের শ্রেষ্ঠ তারকা বলে স্বীকার করেন। কিন্তু এটা মানতে নারাজ বলিউডের আরেক জনপ্রিয় অভিনেতা নানা পাটেকার। এমনটাই জানা গেল ভারতীয় পত্রিকা ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস থেকে।

তবে রজনীকান্তের চেয়ে বড় তারকা কে, সেই উত্তরও দেননি পাটেকার। তবে সেরা তারকা নিয়ে নানা পাটেকারের রয়েছে নিজস্ব একটি ধারণা। তিনি মনে করেন, ‘একটি ছবিই হচ্ছে সবচেয়ে বড় তারকা। যদি ছবির গল্পটা ভালো হয়। আর তা যথাযথভাবে ফুটিয়ে তোলা যায়, তাহলে তারকা নতুন হলেও ছবি ভালো চলে। কিন্তু নিম্নমানের গল্পে জনপ্রিয় তারকাদের দিয়ে ছবি বানালেও তা দু-তিনদিনের বেশি চলবে না। শুধু তারকা দেখেই ছবি চলে না।’

পাশাপাশি নানা পাটেকার স্ক্রিপ্ট লেখকদেরও প্রশংসা করে বলেন, ‘আজকাল লেখকদের অনেক গুরুত্ব দেওয়া হয়। সেলিম-জাভেদরা লেখকদের জন্য ইন্ডাস্ট্রিতে একটি সম্মানজনক স্থান গড়ে দিয়েছেন। এখন একটি ভালো ছবি মানেই একটি ভালো গল্প।’
গত শুক্রবার মুক্তি পায় রজনীকান্ত অভিনীত ছবি ‘কাবালি’। বিশ্বব্যাপী ছবিটি বেশ সাড়া জাগায় মুক্তির আগে থেকেই। তবে মুক্তির পর বেশ সমালোচিত হচ্ছে ছবিটি। এর পেছনে মূল কারণ নাকি ছবিটির ধীরগতি আর দুর্বল চিত্রনাট্য।

Nana-patkher-Vs-Rajinikant-550x311

হিরো আলমের গানের লাইভ শুটিং!! (ভিডিও দেখুন)

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গত দুই দিনের সবচেয়ে চর্চিত বিষয়গুলোর মধ্যে একটি হলো হিরো আলম। ফেসবুক, ইউটিউবসহ বিভিন্ন মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ছে আলমের ভিডিও ও ছবি। কিন্তু কে এই হিরো আলম?
সিডি বিক্রি করতেন আশরাফুল আলম। সেটা বেশ আগের ঘটনা। সিডি যখন চলছিল না তখনই মাথায় আসে ক্যাবল নেটওয়ার্ক ব্যবসার। ভাবলেন নিজ গ্রামেই সেটা করবেন, এবং করে ফেললেন। বগুড়ার এরুলিয়া ইউনিয়নের এরুলিয়া গ্রামেই শুরু হয় আলমের ডিশ ব্যবসা।
ছোটবেলা থেকেই অভাব-অনটনের সাথে চলা আলমের পরিবার তাকে আরেক পরিবারের হাতে তুলে দেয়। আলম চলে আসেন একই গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের বাসায়। আব্দুর রাজ্জাক তাকে ছেলের মতো করেই বড় করে তোলেন। স্নেহ করতেন। কিন্তু গ্রামে অভাব তো প্রায় মানুষের আছে। আলমের পালক পিতা আব্দুর রাজ্জাকের সংসারও অভাবের ছোঁয়া পায়। স্থানীয় স্কুলে সপ্তম শ্রেণি পর্যন্ত পড়ে আলমকে নেমে পড়তে হলো জীবিকা নির্বাহের তাগিদে। সিডি বিক্রি থেকে আলম ডিশ ব্যবসায় হাত দিয়ে সফলতা অর্জন করেন। তার মাসে আয় ৭০-৮০ হাজার টাকা। স্ত্রী ও দুই সন্তান নিয়ে সুখেই আছেন আলম।
কালের কণ্ঠকে আলম বলেন, ”আমি আমার গ্রামের সবার ভালোবাসা পেয়েছি। এই ভালোবাসা আমাকে নিজের হাতে করে খেয়ে বাঁচতে শিখিয়েছে। এখন আমার স্ত্রী-সন্তান নিয়ে আল্লাহর রহমতে সুখেই আছি।”
সিডির ব্যবসা করতেন আলম। ক্যাসেটে দেখতেন মডেলদের ছবি। সেই থেকে মাথায় ঢোকে মডেল হওয়ার। ২০০৮ সালেই করে ফেলেন একটা গানের সাথে মডেলিং। সেটাই ছিল শুরু। এরপরে সেসব মাথা থেকে ঝেড়ে ফেলে সংসারে মনোযোগী হন। ২০০৯ সালে বিয়ে করেন পাশের গ্রামের সুমী নামের এক তরুণীকে। আলম সপ্তম শ্রেণি পর্যন্ত পড়লেও সুমী পড়েছেন এসএসসি পর্যন্ত। তাদের সংসারে আসে নতুন দুই অতিথি। নিজের নামের সাথে মিলিয়ে রাখেন সন্তানদের নাম। পুত্র আবির ও কন্যা আলো। এখন সংসার আর ব্যবসা নিয়েই ব্যস্ত আলম। পাশাপাশি নিজে কিছু মিউজিক ভিডিও করেন। সেগুলো নিজের ক্যাবল চ্যানেলেই প্রচার করেন। গ্রামের মানুষরাও তাকে বাহবা দেয়। আলম উৎসাহ পান।
আলম বলেন, আমার মডেল হওয়ার ইচ্ছে ছিল আগে। যখন সিডি বিক্রি করতাম। আমি জানি না এসব ইচ্ছে পূরণ হয় কি না, তবে লেগে ছিলাম। হয়েছে। অনেকে বলে বাজে হয়েছে আমি কান দেই না। অনেকে আবার বলে ভালোই হয়েছে। আমি গ্রামের ছেলে মন যা চায় করি। মানুষের কথায় কান দেওয়ার ইচ্ছে নেই।
বগুড়া সদরের এরুলিয়া ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আব্দুর রাজ্জাক আলম সম্পর্কে কালের কণ্ঠকে বলেন, ”আলম ছেলে খারাপ না। কষ্ট করে বড় হয়েছে আলম। সে গান গাইতে পারে না, নাচতেও পারে না। তবে তার মডেলিং এর শখ আছে এটা জানি।”
এরুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ কালের কণ্ঠকে বলেন, ”আলম সম্পর্কে জানি সে ডিশ ব্যবসা করে। নির্বাচনও করে। দুইবার দাঁড়িয়েছিল। হেরে গেছে। তবে এলাকার মানুষজন তাকে পছন্দ করে। নির্বাচনে এবার সে দ্বিতীয় হয়েছে। ছেলে হিসেবে খারাপ না, তবে শুনছি মডেলিং-এর দিকে তার ঝোঁক।”
আশরাফুল আলম কালের কণ্ঠকে নির্বাচন সম্পর্কে বলেন, ”আমি এবার মাত্র ৭০ ভোটে হেরেছি। এর আগেরবারও হেরেছি অল্প ভোটে। তবে এলাকার মানুষের ভালোবাসার জন্য আমি আরেকবার নির্বাচন করবো। আমি বলেছিলাম আর দাঁড়াবো না, কিন্তু ভালোবাসার জন্য পরেরবার আরেকবার দাঁড়াবো।”
মডেলিং সম্পর্কে আলম বলেন, ”আমার ভিডিওগুলো ফেসবুক, ইউটিউবে ছড়িয়ে যাওয়ায় এখন অনেকেই আমার সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করছে। ইতিমধ্যে দুটি মিউজিক ভিডিও করার জন্য রাজি হয়েছি। আজ রাতে ঢাকা যাচ্ছি।” কার সাথে, কিসের মিউজিক ভিডিও এমন প্রশ্নের জবাবে আলম জানান, ‘কুসুম কুসুম প্রেম’ ছবির সজলের সাথে কাজ করার কথা। ”সজল ভাই আমাদের বগুড়ার ছেলে।”

hero-alam

এবার আত্মহত্যা করলেন মডেল সিনহা রাজ (ভিডিও দেখুন)


মডেল সাবিরা হোসাইনের আত্মহত্যার রেশ কাটতে না কাটতেই আরও এক উঠতি মডেলের আত্মহত্যার খবর পাওয়া গেছে। এ মডেলের নাম সিনহা রাজ। তার পুমেরা নাম মাহাতারা রহমান শৈলী।

মিডিয়ায় তিনি সিনহা রাজ নামেই পরিচিত। প্রাথকিভাবে জানা গেছে, স্বামী অভিজিৎ অভির সঙ্গে মনোমালিন্যের জের ধরেই আত্মহত্যার সিদ্ধান্ত নেন তিনি।

২০১৪ সালে চ্যানেল আইয়ের ‘ভিট মডেল’ প্রতিযোগী ছিলেন সিনহা রাজ।
এ ঘটনায় সিনহার স্বামী অভিনেতা ও পরিচালক অভিজিৎ অভিকে আটক করেছে পুলিশ।

মহাখালীর দক্ষিণপাড়ার ভাড়া বাসায় গত মঙ্গলবার রাত ১২টার পরে ফ্যানের সঙ্গে ঝুলন্ত অবস্থায় সিনহাকে দেখতে পেয়ে তার স্বামী অভিজিৎ ও প্রতিবেশীরা উদ্ধার করে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে মহাখালী মেট্রোপলিটন হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

সিনহার বাবা সাবেক পুলিশ সুপার মতিউর রহমানের অভিযোগ, বিয়ের দুই বছর পার হলেও যৌতুকের জন্য সিনহাকে মারধর করতো অভিজিৎ। এ কারণেই সিনহা আত্মহত্যা করেছে।

পরে ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠায় পুলিশ। সিনহা রাজের স্বামী অভিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে বলে জানা গেছে।

সূত্র : যুগান্তর, দ্য রিপোর্ট

model-sinha-death

‘বাহুবলি ২’র ক্লাইম্যাক্স খরচ ৩০ কোটি রুপি!


গত বছর ‘বাহুবলি’ ছবিটি মুক্তির পর বেশ সাড়া ফেলেছি। সারাবিশ্বের ছবিটি ৬০০ কোটি রুপি করেছে। এবার এর সিক্যুয়াল তৈরি হয়েছে। প্রথম ছবির ব্যবসা সফল হওয়ায় বোধহয় সিক্যুয়াল নিয়ে চলছে বড় আয়োজন।

একটি সূত্র জানিয়েছে, রামোজি ফিল্ম সিটিতে সোমবার থেকে শুরু হয়েছে ‘বাহুবলি ২’র ক্লাইম্যাক্সের শুটিং কাজ। ১০ সপ্তাহ ধরে চলবে এর শুটিং। তার আগে বেশ কয়েকমাস ধরে রিহার্সাল করেছেন এর কলাকুশলীরা।

এই ক্লাইম্যাক্সের দৃশ্য ধারণে নাকি খরচ হবে ৩০ কোটি রুপি! একটি সূত্র জানিয়েছে, ‘বাহুবলি’র ক্লাইম্যাক্সের দৃশ্যধারণে ১৫ কোটি রুপি খরচ হয়েছিল। মানুষ যুদ্ধের দৃশ্য পছন্দ করেছিল। তাই সিক্যুয়ালটি জন্য নির্মাতার আরো বেশি ব্যাপক ও ভাল করতে চাচ্ছে। আর এজন্য তারা আরো বেশি খরচের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। খবর: এনডিটিভি ও ডিএনএ।

234235

সানির উপর রেগে পর্ণ ছবিতে নামছেন রাখি সাওয়ান্ত ! (ভিডিও)


পর্ণ ছবি থেকে বলিপাড়ায় স্থায়ী আসন গেড়ে বসেছেন আলোচিত অভিনেত্রী সানি লিওন। কিন্তু বরাবরই সানির উপর বেশ রাগ দেখান আরেক অভিনেত্রী রাখি সাওয়ান্তের। সম্প্রতি সানির সাথে আমিরের অভিনয়ের ইচ্ছা প্রকাশ করার কথা শুনে বেশ চটেছেন রাখি।

রাখি বলেছেন, ‘সানি আমির তোমার সঙ্গে কাজ করবে এর পাশাপাশি আরও একটা ভাল খবর দিই। আমি পর্নস্টার হব। খুব তাড়াতাড়ি দেখবে আমি পর্ন সিনেমায় অভিনয় করব।’

পর্ণ সিনেমায় নামার কারণ হিসেবে রাখি বলেন, ”একজন পর্নস্টারকে মোকাবিলা করতে আমাকেও পর্নস্টার হওয়া ছাড়া উপায় নেই।”

পর্ণ ছবি থেকে বলিপাড়ায় স্থায়ী আসন গেড়ে বসেছেন আলোচিত অভিনেত্রী সানি লিওন। কিন্তু বরাবরই সানির উপর বেশ রাগ দেখান আরেক অভিনেত্রী রাখি সাওয়ান্তের। সম্প্রতি সানির সাথে আমিরের অভিনয়ের ইচ্ছা প্রকাশ করার কথা শুনে বেশ চটেছেন রাখি।

রাখি বলেছেন, ‘সানি আমির তোমার সঙ্গে কাজ করবে এর পাশাপাশি আরও একটা ভাল খবর দিই। আমি পর্নস্টার হব। খুব তাড়াতাড়ি দেখবে আমি পর্ন সিনেমায় অভিনয় করব।’

পর্ণ সিনেমায় নামার কারণ হিসেবে রাখি বলেন, ”একজন পর্নস্টারকে মোকাবিলা করতে আমাকেও পর্নস্টার হওয়া ছাড়া উপায় নেই।”

345345

নায়িকার পোশাক খুললেন পরিচালক!!! (ভিডিও)


অভিনেত্রীদের কত কিছুই না সহ্য করতে হয় শ্যুটিং চলাকালীন সময়ে। সহ-অভিনেতার সঙ্গে ঘনিষ্ঠ দৃশ্যে সাবলীল থাকা, বিভিন্ন দৃষ্টিকটু দৃশ্যে অভিনয় করা থেকে শুরু করে অনেক কিছু। তবে এমন কোন ঘটনা মোটেই কাম্য নয় কারো কাছে। সম্প্রতি এক অভিনেত্রীকে শ্যুটিংয়ের সেটে জঘন্য-নিকৃষ্ট পরিস্থিতিতে পড়তে হল। শ্যুটিং ফ্লোরে জোর করে তাঁর পোশাক খুলে দেওয়া হল!

জঘন্যতম এই ঘটনাটি ঘটেছে কেরালায়। মালায়লম ছবি ‘ধীবম সাক্ষী’-র শ্যুটিং চলছিল। সেই ছবির শ্যুটিং চলাকালীন জোর করে ছবির নায়িকার পোশাক খুলে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। থোড়ুপুঝা পুলিস স্টেশানে পরিচালকের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করে ওই অভিনেত্রী জানিয়েছেন যে, ছবিটির স্ক্রিপ্টে ওরকম কোনও দৃশ্যই ছিল না। শ্যুটিং চলাকালীন হঠাৎ জোর করে তাঁর পোশাক খুলে দেওয়া হয়েছে। স্ক্রিপ্টে এরকম দৃশ্য আছে জানলে তিনি এই ছবিতে অভিনয় করতেন না।

অভিনেত্রীদের কত কিছুই না সহ্য করতে হয় শ্যুটিং চলাকালীন সময়ে। সহ-অভিনেতার সঙ্গে ঘনিষ্ঠ দৃশ্যে সাবলীল থাকা, বিভিন্ন দৃষ্টিকটু দৃশ্যে অভিনয় করা থেকে শুরু করে অনেক কিছু। তবে এমন কোন ঘটনা মোটেই কাম্য নয় কারো কাছে। সম্প্রতি এক অভিনেত্রীকে শ্যুটিংয়ের সেটে জঘন্য-নিকৃষ্ট পরিস্থিতিতে পড়তে হল। শ্যুটিং ফ্লোরে জোর করে তাঁর পোশাক খুলে দেওয়া হল!

জঘন্যতম এই ঘটনাটি ঘটেছে কেরালায়। মালায়লম ছবি ‘ধীবম সাক্ষী’-র শ্যুটিং চলছিল। সেই ছবির শ্যুটিং চলাকালীন জোর করে ছবির নায়িকার পোশাক খুলে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। থোড়ুপুঝা পুলিস স্টেশানে পরিচালকের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করে ওই অভিনেত্রী জানিয়েছেন যে, ছবিটির স্ক্রিপ্টে ওরকম কোনও দৃশ্যই ছিল না। শ্যুটিং চলাকালীন হঠাৎ জোর করে তাঁর পোশাক খুলে দেওয়া হয়েছে। স্ক্রিপ্টে এরকম দৃশ্য আছে জানলে তিনি এই ছবিতে অভিনয় করতেন না।

76