আখিঁ আলমগীর। নতুন করে পরিচয় করিয়ে দেয়ার কিছু নেই। তাকে মিডিয়ায় গ্লামার গায়িকা হিসেবেই সবাই চেনে।
তিনি দেশের একজন জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী। শিল্পী পরিবারেই জন্ম। বাবা অভিনেতা আলমগীরের নামটি পাশে থাকার কারণে হয়তো মানুষ তাকে ভালভাবে চেনে। তবে নিজের প্রতিভা গুণেই তিনি পরিবারের বলয় থেকে বের হয়ে আসতে পেরেছেন। গানের পাশাপাশি ফ্যাশন সচেতন নারী হিসেবে তিনি শ্রোতাদের মাঝে ব্যাপক জনপ্রিয়। কখনো উপস্থাপনা, অভিনয় অথবা বিজ্ঞাপন করেছেন। ব্যস্ত থাকেন দেশে বিদেশে বিভিন্ন শো নিয়ে। সব মাধ্যমেই তিনি সমান উৎফুল্ল। গান নয়, নিজের অজানা কিছু বিষয় নিয়েই গায়িকা আখিঁ আলমগীর কথা বলেছেন একটি সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে।

প্রশ্ন: আপনি তো অনেক ফ্যাশন সচেতন। কোন ধরনের পোশাক পরতে স্বাচ্ছন্দবোধ করেন?

আখিঁ: আমি শাড়ি পরতেই বেশি স্বাচ্ছন্দবোধ করি। বিভিন্ন টিভি প্রোগ্রাম, অনুষ্ঠানগুলোতে শাড়ি পরতে হয়। নইলে বাসা বা বাইরে গেলে ওয়েস্টার্ণ ড্রেসই পরি।

প্রশ্ন: আর সাজগোজ?

আখিঁ: সাঁজগোজ তো করতেই হয়। তবে চেহারার জন্য আমি পার্লারে যাই না। হাত পা এর সৌন্দর্যের জন্য যেতে হয়।

প্রশ্ন: কোনো ধরনের অলঙ্কার কি পরেন?

আখিঁ: শাড়ি পরলে তো অলঙ্কার পরতেই হয়। নইলে ঠিক মানায়না। আর আমি একটু বড় ধরনের অলঙ্কার পরতে পছন্দ করি।

প্রশ্ন: কোন ব্র্যান্ডের পারফিউম ব্যবহার করেন?

আখিঁ: জর্জিয়া, কার্ডিও, ডিওর, গুচি, ব্র্যান্ডের পারফিউম ব্যবহার করি।

প্রশ্ন: কি ঘড়ি পরেন?

আখিঁ: রাডো, টিসোর্টসহ বেশ কয়েকটা ব্র্যান্ডের ঘড়ি আছে আমার।

প্রশ্ন: আপনার ফ্যাশন মডেল কে?

আখিঁ: ভারতীয় নায়িকা রেখা আমার প্রিয়। তার ফ্যাশন স্টাইল আমার ভাল লাগে।

প্রশ্ন: কোন পোশাকের প্রতি আলাদা আকর্ষণ কি আছে?

আখিঁ: হ্যাঁ, শাড়ি আমার ভাল লাগে। আমার কয়েক হাজার শাড়ি আছে।

প্রশ্ন: আপনি তো পৃথিবীর অনেক দেশে গিয়েছেন। ঘুরতে যেতে ভাল লাগে কোথায়?

আখিঁ: হ্যাঁ, অনেক দেশেই গিয়েছি। তবে লন্ডন আমার প্রিয় জায়গা। সেখানে ২৫ বার হবেই গিয়েছি। কোনদিন সুযোগ পেলে যাযাবরের মতো পুরো ইউরোপটাও ঘুরে দেখতে চাই। কাজ ও পরিবারের কারণে লন্ডনে আমি অনেকবার গিয়েছি, তবে শো এর কারণে। কিন্তু ইউরোপটা শিল্পী হিসেবে নয়, টুরিস্টদের মতো ঘুরে দেখতে চাই। আমি ইউরোপের অনেক ঘোর গ্রামেও গিয়েছি। এতো ভাল লাগে যা বলার মতো নয়। একদম সাজানো গুছানো পরিপাটি সব গ্রাম। এছাড়া কলকাতাও ভাল লাগে।

প্রশ্ন: পাহাড় ও সমূদ্র, কোনটা প্রিয়?

আখিঁ: সমূদ্রটাই ভাল লাগে। পাহাড়েতো উঠা যায় না, অনেক কষ্ট। দেশের মধ্যে কক্সবাজার আমার প্রিয় জায়গা।

প্রশ্ন: কি ধরনের খাবার ভাল লাগে আপনার? রান্না করেন?

আখিঁ: আমার আসলে সব ধরনের খাবারই ভাল লাগে। এটা আমার অনেক বড় প্রব্লেম। ইটালিয়ান, থাই, ইংলিশ, দেশি সব খাবারই আমি রান্না করতে পারি।

প্রশ্ন: প্রিয় মানুষ?

আখিঁ: বাবা মা।

প্রশ্ন: অবসর সময়ে কি করেন?

আখিঁ: অবসরে রান্না করতে ভাল লাগে। রান্না করলে আমার স্ট্রেস রিলিজ লাগে। এছাড়া সিনেমা দেখি, বই পড়ি। আর শপিং করি।

প্রশ্ন: আপনি কি গাড়ি চালান? কোন গাড়ি আপনার পছন্দ?

আখিঁ: আমি আসলে গাড়ি নিয়ে অতো ভাবি না। দেখতে সুন্দর ও চলে ভাল এমন হলেই আমার চলে। এখন প্রিমিও চালাচ্ছি।

প্রশ্ন: আপনি কি পরিবারের কারণে আলাদা কোন সুযোগ পেয়েছেন? নিজেকে নিয়ে কিছু বলুন।

আখিঁ: নিজের যোগ্যতা ছাড়া মিডিয়ায় কেউ জায়গা পায়না। আর আমার ব্যাকগ্রাউন্ড অনেক শক্ত। তাই খ্যাতি বা জশের প্রতি আমার আলাদা কোন লোভ নেই। আমি এগুলোর মধ্যেই বড় হয়েছি। তাই অনেক বেছে বেছে ধীরে সুস্থে কাজ করি। আমাকে সব সময়ই কাজ করতে হবে। এমন কোন ভাবনা নিয়ে আমাকে থাকতে হয় না। নিজের আনন্দের জন্য আসলে আমি গান করি। গান আমার একদম নিজস্ব ভাল লাগার জায়গা।

1562