ভূত তাড়ানোর নামে এক মহিলাকে ধর্ষণ করল মন্দিরের পুরোহিত৷ পাঁচদিন আগে ওই পুরোহিত মহিলার বাড়ি থেকে তার স্বামীকে বের করে দিয়ে মহিলাকে ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ৷ গত ছয় ফেব্রুয়ারি ভূপালের নিশাথপুরা থানা এলাকায় এই ঘটনা ঘটে৷ যদিও গত মঙ্গলবার এই ঘটনার অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে৷

জানা গিয়েছে, ওই মহিলা বিগত কয়েক বছর ধরে প্রতিদিনই সিঙ্গারচোলি মন্দিরে যেতেন৷ একমাস আগে মন্দিরের পুরোহিত সন্তোষ কুমার কৌশিক মহিলাকে বলে সে অশুভ আত্মার খপ্পরে পড়েছে৷ এই কারণে এই বিশেষ পুজার আয়োজন করারও পরামর্শ দেয় ওই পুরোহিত৷ সে জানায় সে নিজেই এই পুজো করবে৷

পূর্ব পরিকল্পনা অনুয়ারী মহিলার বাড়িতে যায় অভিযুক্ত৷ এরপর মহিলার স্বামীকে সে বাইরে চলে যাওয়ার নির্দেশ দেয়৷

মহিলার অভিযোগ, পুরোহিত যখন পুজা করছিল তখন আচ্ছন্ন হয়ে পড়েছিলেন তিনি৷ এরপর যখন তার জ্ঞান ফেরে তখন তিনি নিজেকে নগ্ন অবস্থায় দেখতে পান এবং নিজের যৌনাঙ্গে ব্যথা অনুভব করেন৷ এরপরেই পুরোহিত তাকে হুমকি দেয় সে যদি সে কাউকে ঘটনার কথা জানায় তবে খারাপ ফল ভোগ করতে হবে৷ মহিলার স্বামী বাড়ি ফিরে এলে তাকে ঘটনার কথা জানায় ওই মহিলা৷ এরপরেই ওই দম্পতি থানায় এসে অভিযোগ দায়ের করে৷

পুলিশ জনিয়েছে, তারা মহিলার অভিযোগের ভিত্তিতে মন্দিরের পুরোহিতের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে৷ অভিযুক্ত পুরোহিতকে গ্রেফতার করতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ৷

554645